বাংলা ফন্ট

ইয়েমেনে সবপক্ষই সম্ভবত যুদ্ধাপরাধ করেছে: জাতিসংঘ

29-08-2018
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

 ইয়েমেনে সবপক্ষই সম্ভবত যুদ্ধাপরাধ করেছে: জাতিসংঘ

ঢাকা: ইয়েমেনে লড়াইরত সবগুলো পক্ষই সম্ভবত যুদ্ধাপরাধ করেছে বলে জাতিসংঘ জানিয়েছে। মঙ্গলবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে সংস্থাটির বিশেষজ্ঞরা জানান, সরকারি বাহিনী, সৌদি জোট ও হুতি বিদ্রোহীদের কেউই বেসামরিকদের দুর্দশা কমানোর চেষ্টা করেনি।
 
যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেন নিয়ে প্রথমবারের মতো এমন বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশ করলো জাতিসংঘ। সংস্থাটি বলেছে, যুদ্ধে স্কুল, হাসপাতাল ও বাজারে বোমা হামলা চালানো হয়েছে। এতে নিহত হয়েছে হাজার হাজার মানুষ। জাতিসংঘ জানায়, সৌদি জোটের আকাশ ও নৌপথ অবরোধ করে দেওয়াও যুদ্ধাপরাধের সামিল। আগামী মাসে জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদে এই প্রতিবেদন জমা দেবেন বিশেষজ্ঞরা।
 
সোমবার সৌদি জোট অভিযোগ করেছিল ইয়েমেনি শিশুদের হত্যা তদন্ত ও নিন্দা জানানোয় জাতিসংঘ পক্ষপাতমূলক আচরণ করেছে। জোটের মুখপাত্র তুর্কি আল মালিকি বলেন, জাতিসংঘের এই তথ্য মূলত বিদ্রোহীদের কাছ থেকে পাওয়া। ইয়েমেনে সৌদি জোটের অভিযান শুরুর পর এ পর্যন্ত প্রায় ১০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে দুই হাজারেরও বেশি শিশু রয়েছে।
 
যুদ্ধ ও অবরোধের কারণে দুই কোটিরও বেশি মানুষ মানবেতর জীবন-যাপন করছে। তাদের কাছে পর্যাপ্ত মানবিক সহায়তা পৌঁছাচ্ছে না। বিশ্বের সবচেয়ে ভয়াবহ দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে দেশটি।
 
তিন বছর আগে ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট মনসুর হাদিকে উচ্ছেদ করে রাজধানী দখলে নেয় ইরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহীরা। সৌদি রাজধানী রিয়াদে নির্বাসনে যেতে বাধ্য হন হাদি। হুতিদের ক্ষমতা দখলের পর থেকেই হাদির অনুগত সেনাবাহিনীর একাংশ হুতিদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করে। ২০১৫ সালের মার্চে হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে মিত্রদের নিয়ে ‘অপারেশন ডিসাইসিভ স্টর্ম’ নামে সামরিক অভিযান শুরু করে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। -আল জাজিরা

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল


সর্বশেষ সংবাদ