বাংলা ফন্ট

উত্তাল রাবি'তে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে আন্দোলন

09-04-2018
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

 উত্তাল রাবি'তে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে আন্দোলন
রাবি: কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীদের উপর পুলিশ ও ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রধান ফটকের সামনে মহাসড়ক অবরোধ করে রেখেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

আজ সোমবার সকাল ৮টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন আবাসিক হল ও বিভাগ থেকে খন্ড খন্ড মিছিল বের হয়ে কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। পরে ক্যাম্পাসের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পূর্বের স্থানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয় তারা। পরে প্রধান ফটকের সামনে অবস্থান নিয়ে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছেন কোটা সংস্কারপন্থীরা। এতে প্রধান ফটকের দুই পাশে প্রায় তিন কিলোমিটার তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

এ কর্মসূচি অনির্দিষ্টকাল পর্যন্ত চালিয়ে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর পুলিশ ও ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে রোববার দিবাগত রাত ১টা থেকে রাত আড়াইটা পর্যন্ত প্রধান ফটকের সামনে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। রাত ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের তালা ভাঙতে চেষ্টা করেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। এসময় টায়ার জালিয়ে স্লোগান দিতে থাকেন তারা। প্রায় ঘন্টাব্যাপী বিক্ষোভ ও অবস্থান কর্মসূচিতে কয়েক হাজার শিক্ষার্থী অংশ নেন। পরে আন্দোলনের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সমন্বয়ক মাসুদ মোন্নাফ শিক্ষার্থীদেরকে আবাসিক হলগুলোতে ফিরে যাওয়ার অনুরোধ জানান। এসময় মহাসড়ক ছেড়ে দিয়ে শিক্ষার্থীরা হলগুলোতে ফিরে যান।

এদিকে পূর্ব নিধারিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রধান ফটকের সামনে বিকেল ৪টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মহাসড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছিল।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ‘পিতা তুমি ফিরে আস, বৈষম্য দূর করো’, ‘আমার ভাই কারাগারে কেন? প্রশাসন জবাব চাই, জবাব চাই’- বিশ্ববিদ্যালয় প্রধান ফটকের সামনে কোটা সংস্কারের দাবি ও আন্দোলনকারীদের উপর হামলায় জড়িতদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবিতে এ ধরনের শ্লোগান দিতে থাকে কোটা সংস্কারপন্থীরা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনো বিভাগে ক্লাস-পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয় পরিবহনের কোনো বাস ছেড়ে যায়নি।

কোটাসংস্কার আন্দোলনের সমন্বয়ক মাসুদ মোন্নাফ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর মুখ থেকে আমরা কোটা সংস্কারের কথা শুনতে চাই। না শুনা পর্যন্ত আমাদের এ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।’

মতিহার থানার (ভারপ্রাপ্ত) কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন জানান, ‘প্রধান ফটকের সামনে শিক্ষার্থীরা মহাসড়ক অবরোধ করে শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করছে।’

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান জানান, ‘কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে প্রধান ফটকের সামনে রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছেন।’

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল


 

সর্বশেষ সংবাদ