বাংলা ফন্ট

'জিয়ার বহুদলীয় গণতন্ত্র মানে যুদ্ধাপরাধীদের পুনর্বাসন'

10-01-2018
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম

 'জিয়ার বহুদলীয় গণতন্ত্র মানে যুদ্ধাপরাধীদের পুনর্বাসন'
ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জাতির পিতাকে হত্যার করার পর যারা ক্ষমতায় এসেছিল সে সময় গণতন্ত্রের নামে প্রহসন শুরু হয়। জাতিকে বিভ্রান্তির চেষ্টা করা হয়। কিছু কিছু লোক সেটাকেই মেনে নিয়ে অনেকেই প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়। কিন্তু একবারও ভেবে দেখেনি যে, জিয়াউর রহমানের বহুদলীয় গণতন্ত্র মানে যুদ্ধাপরাধীদের পুনর্বাসন করা। জিয়াউর রহমানের বহুদলীয় গণতন্ত্র মানে স্বাধীনতা বিরোধীদের রাজনীতি করার সুযোগ দেওয়া।

বুধবার বিকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ১০ জানুয়ারি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করা হচ্ছিল। কিন্তু এক সময় আইন করে তাদের ছেড়ে দেওয়া হলো। বাঙালি জাতিকে অন্ধকারে রাখা হলো। অর্ডিনেন্স জারি করে যাদের বিচার বাতিল করা হয়েছিল সেই অর্ডিনেন্স বাতিল করে তাদের আবার বিচার শুরু করি আমরা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পাকিস্তানি হানাদাররা যেমন মানুষদের পুড়িয়ে মেরেছে ঠিক একইভাবে বিএনপি মানুষদের পুড়িয়ে মেরেছে। এরা জনগণের কল্যাণ করতে পারে না।

তিনি আরও বলেন, যারা দেশে ২৮ বছর ক্ষমতায় ছিল তারা কেনো উন্নতি করতে পারে নাই। কল্যাণ করতে পারে নাই। কারণ তারা তা করতে চায় নি। একমাত্র আওয়ামী লীগ এলেই দেশের উন্নতি হয়। আজকে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা জাতির পিতার কাছে ওয়াদা দিলাম ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্রমুক্ত দেশ গড়বো। বাংলাদেশের জনগণকে উন্নয়নের ধারা তরান্বিত করারও আহ্বান জানাচ্ছি।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর.কম/এইএমএল

সর্বশেষ সংবাদ